অষ্টম পৃষ্ঠার বাকী খবর

একনেকে পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র

বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য ডিজাইন বেসিস থ্রেট (ডিবিটি) এবং এর বাইরের হুমকিগুলো মোকাবিলা করা হবে। এর আওতায় পারমাণবিক নিরাপত্তা সংস্কৃতি প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি নিউক্লিয়ার পদার্থের ব্যবস্থাপনা ও নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করা হবে। সাইবার নিরাপত্তা ও সংবেদনশীল তথ্যের ব্যবস্থাপনাও নিশ্চিত করা হবে। একনেক সভায় ৩৬৬ কোটি ২৮ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘যশোর-মনিরামপুর-কেশবপুর-চুকনগর আঞ্চলিক মহাসড়ক প্রকল্পটির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। অনুমোদন পেয়েছে ‘ফেনী-সোনাগাজী-মহুরী প্রকল্প সড়কে এবং বক্তারমুন্সী-কাজিরহাট- দাগনভঁইয়া সড়কে সেতুন নির্মাণ প্রকল্প। এতে ব্যয় হবে ৭১ কোটি ৩৮ লাখ টাকা। আর ৭৯ কোটি ব্যয়ে ‘আগারগাঁও শেরেবাংলা নগরে পর্যটন ভবন ও ৩৬১ কোটি টাকা ব্যয়ে ‘কক্সবাজার জেলার একতাবাজার হতে বানৌজ শেখ হাসিনা ঘাঁটি পর্যন্ত সড়ক নির্মাণ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৭৯ কোটি টাকা। এদিকে একনেক সভায় ১২০ কোটি ৮২ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘সিলেট জেলার সদর ও বিশ্বনাথ উপজেলায় দশগ্রাম মাহতাবপুর ও রাজাপুর পরগণা বাজার এলাকা সুরমা নদীর উভয় তীরের ভাঙন রক্ষা’ প্রকল্পেরও অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।


৬৮ কারাগারে ১৪১ পদের

মুমিনুল ইসলাম একটি প্রতিবেদন দাখিল করেন। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, কারা চিকিৎসকের অনুমোদিত পদের সংখ্যা ১৪১টি। এর বিপরীতে কর্মরত রয়েছে ১০ জন। স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ থেকে প্রেষণে বদলির মাধ্যমে কারা-চিকিৎসক নিয়োগ দেওয়ার বিধান রয়েছে। তাই, সরাসরি বা চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের সুযোগ নেই। এদিকে, ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি ২০ জন চিকিৎসককে কারাগারে পদায়ন করা হয়। এর মধ্যে মাত্র চারজন যোগদান করেন। বাকি ১৬ জন এখনো যোগদান করেননি। কেন ওই ১৬ জন যোগদান করেননি তা ১১ নভেম্বরের মধ্যে জানাতে আদালত রাষ্ট্রপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানান মো. জে আর খাঁন রবিন। এ বিষয়ে কয়েকটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত প্রতিবেদন যুক্ত করে আদালতে রিট আবেদন করেছিলেন তিনি। ২৩ জুন জারি করা রুলে কারাগারে আইনগত অধিকার নিশ্চিতে মানসম্মত থাকার জায়গা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্টদের নি®িঙঊয়তা কেন বেআইনি হবে না এবং বন্দিদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিতে কারা-চিকিৎসকের শূন্যপদে নিয়োগ দিতে নি®িঙঊয়তা কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে তা জানতে চেয়েছেন আদালত। এর বিবাদীরা হচ্ছেন আইন সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব (সুরক্ষা বিভাগ), স্বাস্থ্য সচিব, সমাজ কল্যাণ সচিব, জনপ্রশাসন সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও কারা মহাপরিদর্শক।


নারায়ণগঞ্জে ভবন ধসে নিখোঁজে

সার্ভিসের উদ্ধার কর্মীরা। শিশুটি মূলত পুরো ভবন ধসের নিচে চাপা পড়ে ছিল। নিচে নোংরা কাদাপানি থাকায় সেখানে উদ্ধার অভিযানে একাধিকবার নামতে গিয়েও নামতে পারেননি উদ্ধারকর্মীরা। অনেকবার এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে পানি দিয়ে এই কাদা দূর করে তল্লাশি চালানোর কথা বলা হলেও তা করা হয়নি। নিহত ওয়াজিদ ধসে যাওয়া বাড়িটি কাছাকাছিই থাকতো। তার বাবার নাম আবদুল রুবেল ও মায়ের নাম কাকলী বেগম। সে একই এলাকার ব্যাপারীপাড়ার সানরাইজ স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। রোববার বিকেলে মুন্সীবাড়ি এলাকার এইচ এম ম্যানশন ভবনটি ধসে পড়ে। ভবনটির মালিক মৃত আবদুর রউফ মিয়ার চার সন্তান। ফায়ার সার্ভিসে অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের মন্ডলপাড়া স্টেশনের স্টেশন কর্মকর্তা বেলাল জানান, আমরা উদ্ধার অভিযানের একপর্যায়ে দেয়াল ভাঙতে ভাঙতে শেষ পর্যায়ে নিচের দিকের দেয়ালের নিচে চাপাপড়া ওয়াজিদের পায়ের সন্ধান পাই। তখন তাৎক্ষণিক তাকে উদ্ধারে অভিযান শুরু করা হয়। তবে অনেক চেষ্টা করলেও তাকে জীবিত উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। তিনি জানান, হয়তো সে বের হতে গিয়ে দেয়ালের নিচে চাপা পড়েছিল। যে কারণে আমরা ভবনের ভেতরে দেয়াল কেটে আসবাবপত্র সরিয়েও তার সন্ধান পাচ্ছিলাম না। নিচের কাদাপানির কারণে পানির নিচে নেমেও অনুসন্ধানে অনেক বেগ পেতে হয়, নামাটাও হয়ে পড়ে কঠিন। ওয়াজিদের বাবা রুবেল জানান, তার সন্তান ভবনটির নিচতলায় সোনিয়া নামে এক মহিলা আরবি পড়ান, তার এখানে আরবি পড়তে এসে ভেতরে আটকে পড়েছিল। প্রম থেকেই ফায়ার সার্ভিসকে আমরা বলেছি যেন ভেতরে অক্সিজেন দেন, নিচে চাপা পড়েছে কিনা দেখেন। আমার সন্তান এখানেই আছে তারা আমাদের কথা শোনেনি। আজকে দুদিন পর আমার সন্তানকে তারা মৃত উদ্ধার করলো। ওয়াজিদের মা কাকলী বেগম ছেলের মৃত্যুর সংবাদে বারবার মূর্ছা যেতে যেতে বলেন, ফায়ার সার্ভিসের একদল যায় আরেকদল আসে। আমরা অনেক বলেছি ভেতরে আমার ছেলে আছে কিন্তু শোনেনি, বলে কাজ চলছে। আমার ছেলেরে আমি নিজে এগিয়ে এসে দিয়ে গেছি পড়তে। ফায়ার সার্ভিসের জন্যই আমার ছেলেকে জীবিত উদ্ধার করা গেলো না। স্থানীয় যুবক রমজান আলী জানান, আমরা গত সোমবার ঝগড়া করেছিলাম ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার কর্মীদের সঙ্গে তাদের কাজের ধীরগতি দেখে। আমরা বলেছিলাম তারা না পারলে এলাকাবাসীর কাছে দিক, আমরাই উদ্ধার করি। তারা সেটি করেনি। আজকে দেয়ালের নিচ থেকে শিশুটির লাশ পাওয়া গেলো, হয়তো এই চেষ্টা আগে করলে শিশুটিকে জীবিতও উদ্ধার করা যেত। আমরা বলেছিলাম পানি যাওয়ার ব্যবস্থা করে পানি দেন একমুখী তাহলে কাদা পরিষ্কার হবে, সেটিও করেনি তারা। এখন করছে। স্থানীয়রা জানান, ভবনটি মূলত একটি ডোবার উপর নির্মাণ করা হয়েছিল। সেখানকার লোকজনও এ ব্যাপারে অনেকবার ভবন মালিককে নিষেধ করেছিলেন। ভবনটি কোনো সয়েল টেস্ট কিংবা রাজউকের অনুমতি ও পাইলিং ছাড়া নির্মাণ করা হয়েছিল। ছিল না কোনো ফাউন্ডেশনও। ভবনটি তিনতলা পর্যন্ত করার পরও ঠিকঠাক ছিল। কিন্তু সম্প্রতি চারতলার ছাঁদ ঢালাই দেওয়া হয়। আর এ লোড নিতে না পেরেই রোববার ধসে পড়ে ভবনটি। নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী পরিচালক আবদুল্লাহ আরেফিন জানান, একটি দেয়ালের নিচে চাপা পড়েছিল শিশুটি। এ কারণে আমরা তার অবস্থান নিশ্চিত হতে পারিনি। উদ্ধার অভিযানের একপর্যায়ে দুপুর ২টায় তার সন্ধান পাওয়া যায়। ততক্ষণে শিশুটি আর জীবিত নেই।


প্রবাসীদের ভোটার হতে দালাল

পিছিয়ে আছেন তারা ক্ষতিগ্রস্ত হন দালালদের খপ্পরে পড়ে। কঠিন কিছু হলে কারও সহায়তা নিয়ে ফরমটা অনলাইনে পূরণ করে নেবেন। এনআইডি মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার সাইদুল ইসলাম তার উপস্থাপনায় বলেন, অনলাইনে কেউ আবেদন করলে সেটা আমরা তার উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে পাঠাবো। সেখান থেকে তদন্ত প্রতিবেদন এলে, যোগ্য ব্যক্তির দশ আঙুলের ছাপ ও চোখের আইরিশ নেওয়ার জন্য দূতাবাসে হেল্প ডেস্ক বসানো হবে। এরপর সেটি ইসি সার্ভারে নিয়ে স্মার্ট কার্ড ছাপিয়ে হেল্প ডেস্কের মাধ্যমে বিতরণ করা হবে। প্রবাসীদের মধ্যে বিষয়টি নিয়ে সচেতনতার জন্য বিভিনড়ব মিডিয়াসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও প্রচার করা হবে। এনআইডি মহাপরিচালক বলেন, মোট ছয়টি ডকুমেন্ট দিতে হবে প্রবাসীদের ভোটার হওয়ার জন্য। এগুলো হলো- পাসপোর্টের ফটোকপি, বিদেশি পাসপোর্টধারী হলে দ্বৈত নাগরিকত্ব সনদের ফটোকপি বা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতিপত্র, বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে শনাক্তকারী একজন প্রবাসী বাংলাদেশি নাগরিকের পাসপোর্টের কপি, বাংলাদেশে বসবাসকারী রক্তের সম্পর্কের কোনো আত্মীয়ের নাম, মোবাইল নম্বর ও এনআইডি নম্বরসহ অঙ্গীকারনামা, বাংলাদেশে কোথাও ভোটার হয়নি মর্মে লিখিত অঙ্গীকারনামা ও সংশ্লিষ্ট দূতাবাসের প্রত্যয়নপত্র। বিভিনড়ব দেশে দেড় কোটির মতো বাংলাদেশের নাগরিক বসবাস করছেন বলে অনেক প্রতিবেদনে ওঠে এসেছে। ২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে এটিএম শামসুল হুদার নেতৃত্বাধীন নির্বাচন কমিশন ছবিযুক্ত ভোটার তালিকা প্রণয়ন করেন। যার ভিত্তিতেই পরে ভোটারদের জাতীয় পরিচয়পত্র দেওয়া হচ্ছে। গড়ে তোলা হয় এনআইডি তথ্য ভা-ার। বর্তমানে ৫০টির বেশি সংস্থা-প্রতিষ্ঠান এই তথ্যভা-ার থেকে ব্যক্তির পরিচয় নিশ্চিত হয়ে নিচ্ছে। এতে অপরাধী চিহ্নিত করাসহ বহুমুখী সমস্যা সমাধান সহজ হয়ে গেছে। এছাড়াও সহজেই মিলছে নাগরিক সেবা। ইসির সার্ভারে বর্তমানে ১০ কোটি ৪২ লাখ নাগরিকের তথ্য আছে। অনলাইনে ভোটার হওয়ার জন্য ংবৎারপবং.হরফ.িমড়া.নফ -এ গিয়ে আবেদন করতে হবে। মোট ছয়টি ডকুমেন্ট দিতে হবে প্রবাসীদের ভোটার হওয়ার জন্য। এগুলো হলো পাসপোর্টের ফটোকপি, বিদেশি পাসপোর্টধারী হলে দ্বৈত নাগরিকত্ব সনদের ফটোকপি বা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতিপত্র, বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে শনাক্তকারী একজন প্রবাসী বাংলাদেশি নাগরিকের পাসপোর্টের কপি, বাংলাদেশে বসবাসকারী রক্তের সম্পর্কের কোনো আত্মীয়ের নাম, মোবাইল নম্বর ও জাতীয় পরিচয়পত্রের (এনআইডি) নম্বরসহ অঙ্গীকারনামা, বাংলাদেশে কোথাও ভোটার হননি মর্মে লিখিত অঙ্গীকারনামা ও সংশ্লিষ্ট দূতাবাসের প্রত্যয়নপত্র। এ কার্যμমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ইসির সম্মেলন কক্ষে জ্যেষ্ঠ নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, রফিকুল ইসলাম, শাহাদাত হোসেন চৌধুরী, কবিতা খানম, নির্বাচন কমিশন সচিব মো. আলমগীর, এনআইডি অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাইদুল ইসলামসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এফআর টাওয়ারের মালিক

শওকত আলী। আদেশের অনুলিপি পাওয়ার সাত দিনের মধ্যে তাদের বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আবেদনে গতকাল মঙ্গলবার বিচারপতি নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেয়।

আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী খুরশিদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হেলেনা বেগম চায়না। খুরশীদ সাংবাদিকদের বলেন, বনানীর এফআর টাওয়ার সংμান্ত দুদকের মামলায় এই তিন আসামির সঙ্গে অপর মালিক বিএনপির নেতা তাসভীর উল ইসলামের জামিন বাতিল চেয়ে আবেদন করা হয়। আদালত তাসভীরের জামিন বাতিলের আবেদনটি খারিজ করে দিয়েছে। বাকিদের জামিন কেন বাতিল করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারির পাশাপাশি তাদের জামিন বাতিলে অন্তবর্তী আদেশ দেয়। আদেশের অনুলিপি পাওয়ার সাত দিনের মধ্যে বিজ্ঞ বিচারিক আদালতে তাদের আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে। মামলাটিতে ১৫ থেকে ২০ দিনের মধ্যে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হবে বলে তিনি জানান। আসামিরা ১৯ অগাস্ট থেকে ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময়ের মধ্যে ভিনড়ব দিনে ঢাকার মহানগর জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ কে এম ইমরুল কায়েশের আদালত থেকে জামিন নেন। গত ২৮ মার্চ এফআর টাওয়ারে ভয়াবহ অগিড়বকা-ে ২৭ নিহত হওয়ার পর এই ভবন নির্মাণে নানা অনিয়মের বিষয়গুলো বেরিয়ে আসতে থাকে। কামাল আতাতুর্ক এভিনিউয়ে ওই ভবনের জমির মূল মালিক ছিলেন প্রকৌশলী এসএমএইচআই ফারুক। অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে ভবনটি নির্মাণ করে রূপায়ন হাউজিং এস্টেট লিমিটেড। সে কারণে সংক্ষেপে ভবনের নাম হয় এফআর টাওয়ার। নকশা জালিয়াতির মাধ্যমে ভবনটিতে কয়েকটি তলা বাড়ানোর অভিযোগে গত ২৫ জুন তাসভীরসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে দুটি মামলা করেন দুদক কর্মকর্তা মো. আবুবকর সিদ্দিক। একটি মামলায় রাজউকের ভুয়া ছাড়পত্রের মাধ্যমে এফআর টাওয়ারকে ১৯ তলা থেকে বাড়িয়ে ২৩ তলা করা, উপরের ফ্লোরগুলো বন্ধক দেওয়া ও বিμি করার অভিযোগে ২০ জনকে আসামি করা হয়। অপর মামলাটি করা হয় এফআর টাওয়ারের ১৫ তলা পর্যন্ত নির্মাণের ক্ষেত্রে ইমারত বিধিমালা লঙ্ঘন এবং নকশা জালিয়াতির মাধ্যমে ১৮ তলা পর্যন্ত বাড়ানোর অভিযোগে। ফারুক ও নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের মালিক রূপায়ন গ্রুপের চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী খান মুকুল দুই মামলারই আসামি। ১৯৯০ সালে ১৫ তলা ভবন নির্মাণের জন্য রাজউক থেকে অনুমতি নেয় এফআর টাওয়ার কর্তৃপক্ষ। পরে ১৯৯৬ সালে অবৈধভাবে ওই ভবন ১৮ তলা করার অনুমোদন দেয় রাজউক। এফআর টাওয়ার পরে ২০০৩ সালে রূপায়ন হাউজিং লিমিটেডের সঙ্গে চুক্তি করে। সেই চুক্তি অনুযায়ী নির্মিত হয় ১৮ তলা ভবন। একই বছর রূপায়নের সঙ্গে সম্পূরক চুক্তি করে এফআর টাওয়ার। সেখানে ভবনটি ২৩ তলায় উনড়বীত করতে সম্মত হয় দুই পক্ষ। এজাহারে বলা হয়েছে, দ্বিতীয় পর্যায়ের কাজের জন্য রাজউকের এস্টেট শাখা থেকে কোনো দরপত্র দেওয়া হয়নি। কোন ধরনের নকশা বা বিলও অনুমোদন করা হয়নি। এর আগে এফআর টাওয়ারে অগিড়বকা-ের ঘটনায় পুলিশের করা মামলাতেও ফারুককে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। সে সময় পুলিশ তাকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদও করেছিল। পরে তিনি ওই মামলায় জামিনে মুক্তি পান।

‘সাসটেইনেবল অ্যাপারেলস

উপস্থাপন করেন। সাসটেইনেবল অ্যাপারেল ফোরামের দ্বিতীয় সংস্করণে বিভিনড়ব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের ওপর আটটি গবেষণা প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয়। সাসটেইনেবল অ্যাপারেল ফোরামে আসা বিদেশি বক্তা ও দর্শনার্থীদের জন্য বাংলাদেশ অ্যাপারেল এক্সচেঞ্জ সবুজ কারখানা পরিদর্শনের আয়োজন করা হয়েছে। যেন তারা বাংলাদেশের সবুজ কারখানা এবং পরিবেশ বান্ধব উৎপাদন প্রμিয়া সম্পর্কে সামগ্রিক ধারণা অর্জন করতে পারেন। সাসটেইনেবল অ্যাপারেল ফোরামের দ্বিতীয় সংস্করণটির আয়োজক বাংলাদেশ অ্যাপারেল এক্সচেঞ্জ ও বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ)। ফোরামের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন বিজিএমইএ-এর সাবেক সভাপতি এবং ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মোহাম্মদ আতিকুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, বাংলাদেশে নিযুক্ত কানাডার হাইকমিশনার বেনোইত প্রিফন্টেইন ও গ্লোবাল প্রোডাকশনের হেড অব সাসটেইনেবলিটি পিয়েরে বরজেসন। মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, আমরা আমাদের পোশাক শিল্পের শ্রমিকদের নিরাপত্তা, অধিকার এবং সম্মানের দিকে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। বাংলাদেশের পোশাক শিল্পের বর্তমান ট্যাগ হচ্ছে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’। আপনারা সবাই আমাদের সঙ্গে একযোগে কাজ না করলে আমরা বর্তমান লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারতাম না। টেকসই উনড়বয়ন পরিকল্পনা ছাড়া কোনো ব্যবসা সফল হতে পারে না।

ঘুষ নেওয়ার সময় দুদকের হাতে

দুদকের খুলনা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. শাওনা মিয়া জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঘুষ লেনদেনের পর ঘুষের ১০ হাজার টাকাসহ জিএম গোলাম মোস্তফা কামালকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগে খুলনা দুদক সমন্বিত কার্যালয়ে মামলা হয়েছে। মামলা নম্বর-১২ (তাং-০৫/১১/১৯ইং)। অভিযানে দুদকের সহকারী পরিচালক তরুণ কান্তি ঘোষ, উপসহকারি পরিচালক নীলকমল পাল, খন্দকার কামরুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

রিফাত হত্যার ২ আসামির জামিন

জাহাঙ্গীর কবির। ছগির সাংবাদিকদের বলেন, আদালত বলেছে আলোচিত ও স্পর্শকাতর এ মামলায় আসামিদের জামিনের বিষয়ে এখন কোনো আদেশ আমরা দিতে পারব না। আবেদনদুটি কার্যতালিকা থেকে বাদ দেওয়া হল। রিফাত হত্যা মামলার ৮ নম্বর আসামি ওই কিশোরকে গত ৫ জুলাই গ্রেপ্তার করা হয়। নিমড়ব আদালতে তার জামিন আবেদন না মঞ্জুর হলে এর বিরুদ্ধে হাই কোর্টে আবেদন করে সে। অপর আসামি রাব্বির জামিনের আবেদন গত ১৮ সেপ্টেম্বর হাকিম আদালতে নামঞ্জুর হয়। পরে জেলা দায়রা জজ আদালতে গিয়েও তিনি জামিন পাননি। এ আদেশের বিরুদ্ধে রোববার হাই কোর্টে আবেদন করেন তিনি। তার আইনজীবী জাহাঙ্গীর বলেন, হাই কোর্টের অন্য বেঞ্চে আবার জামিন আবেদন করা হবে। গত ২৬ জুন বরগুনা জেলা শহরের কলেজ রোডে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করা হয় রিফাতকে। ওই ঘটনার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে দেশজুড়ে সমালোচনা হয়। এরপর ২ জুলাই এ হত্যা মামলার প্রধান সন্দেহভাজন সাব্বির আহম্মেদ ওরফে নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন। এ ঘটনায় রিফাতের বাবা দুলাল শরীফ বাদী হয়ে ১২ জনকে আসামি করে বরগুনা থানায় হত্যা মামলা করেন। মামলায় রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিনিড়বকে মামলায় ১ নম্বর সাক্ষী করা হয়। কিন্তু মিনিড়বর শ্বশুর পরে হত্যাকা-ে পুত্রবধূর জড়িত থাকার অভিযোগ তুললে পরে তাকেও রিফাত হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়। তিনি হাই কোর্ট থেকে শর্তসাপেক্ষে জামিন নিয়ে বাবার বাড়িতে আছেন। মামলার ১৪ কিশোর আসামি বাদে অন্যরা হলেন- রাকিবুল হাসান ওরফে রিফাত ফরাজী (২৩), আল কাইয়ুম ওরফে রাব্বি আকন (২১), মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত (১৯), রেজোয়ান আলী খান হৃদয় ওরফে টিকটক হৃদয় (২২), হাসান (১৯), মুসা (২২), আয়শা সিদ্দিকা মিনিড়ব (১৯), রাফিউল ইসলাম রাব্বি (২০), সাগর (১৯) ও কামরুল হাসান সায়মুন (২১)।


সুন্দরবনে হরিণ শিকারের ফাঁদ ও

‘বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার গৌরম্ভা ইউনিয়নে’ বলায় আটকদের সনাক্ত করতে ওই ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানকে খবর পাঠানো হয়েছে। সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মো. মাহমুদুল হাসান বলেন, গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭ টার দিকে একদল চোরা শিকারী হরিণ শিকারের ফাঁদ নিয়ে সুন্দরবনে যাচ্ছে এমন গোপন সংবাদ পায় বনবিভাগ। এরপর বনকর্মীরা চাঁদপাই রেঞ্জের জয়মনি এলাকায় গিয়ে তিনটি ট্রলারে ৬০ জনকে দেখতে পায়। বনকর্মীরা তাদের ট্রলারে তল্লাশি চালিয়ে হরিণ শিকারের ফাঁদ, ধারালো দা, কুড়ালসহ নানা সরঞ্জাম উদ্ধার করে বলে জানান তিনি। আগামী ১০ নভেম্বর থেকে ১২ নভেম্বর সুন্দরবনের দুবলারচরের আলোরকোলে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের রাস উৎসব হবে। এইসব চোরা শিকারী সেই রাস মেলা উপলক্ষে হরিণ শিকার করতে সুন্দরবনে ঢোকে বলে দাবি করেন ওই বন কর্মকর্তা। রাস মেলায় অংশ নেওয়ার জন্য ১০ নভেম্বর থেকে বনবিভাগের অনুমতি দেওয়ার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই চোরা শিকারীদের কাছে বনবিভাগের কোনো পাশ পারমিট নেই। তাদের বনবিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জ কার্যালয়ে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বন কর্মকর্তা।

টেলিযোগাযোগ খাতে আর্থিক ও

মধ্যে প্রযুক্তির অভাবনীয় ভার্সন ফাইভ-জি প্রযুক্তি চালু করতে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ২০১৮ সালে ফাইভ-জি প্রযুক্তির পরীক্ষা সফলভাবে সম্পনড়ব করা হয়। তিনি ডিজিটাল প্রযুক্তি সম্প্রসারণে গৃহীত বিভিনড়ব কর্মসূচি তুলে ধরে বলেন, ফাইভ-জি প্রযুক্তি কেবল কথা বলার প্রযুক্তি নয়; কৃষি, মৎস্যসহ শিল্পের প্রতিটি শাখায় অভাবনীয় পরিবর্তনের সূচনা করবে, সভ্যতার পরিবর্তন ঘটাবে। প্রতিনিধিদল দেশের অগ্রগতির প্রতিটি সূচকসহ ডিজিটাল প্রযুক্তি বিকাশে বাংলাদেশের অগ্রগতির প্রশংসা করে ফাইভ-জি প্রযুক্তি চালু করতে বাংলাদেশের প্রস্তুতি ও ভবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনা বিষয়ে আগামীকাল বৃহস্পতিবার সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের সঙ্গে বৈঠকের আগ্রহ ব্যক্ত করে। ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব অশোক কুমার বিশ্বাস এবং টেলিযোগাযোগ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মহসিনুল আলম এ সময় উপস্থিত ছিলেন। প্রতিনিধিদলের অপর সদস্যরা হলেন বিশ্বব্যাংকের সিনিয়র ডিজিটাল ডেভলপমেন্ট স্পেশালিস্ট রাজেন্দ্র সিংহ এবং বিশ্বব্যাংকের শিক্ষা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ টিএম আসাদুজ্জামান।

ঢাকায় হবে খোকার চারদফা

সদস্যরা রয়েছেন। তারা ঢাকায় পৌঁছানোর পর দলের সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে আলোচনার পর অন্যান্য সিদ্ধান্ত নেবেন। নিউ ইয়র্কে খোকার জানাজায় মানুষের ঢল: নিউ ইয়র্কে সাদেক হোসেন খোকার জানাজায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের ঢল নেমেছিল। স্থানীয় সময় গত সোমবার রাতে এশার নামাজের পর নিউ ইয়র্কের কুইন্সের জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারে তার এই জানাজায় ইমামতি করেন খতিব মাওলানা মির্জা আবু জাফর বেগ। যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির নেতা-কর্মী ছাড়াও দলমত নির্বিশেষে প্রবাসীরা মুক্তিযোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকার জানাজায় অংশ নেন। মসজিদের প্রতিটি ফ্লোর কানায় কানায় ভরে যায়। মসজিদের আশেপাশের সড়কেও দাঁড়ায় শত শত মানুষ। নিউ ইয়র্কের আশপাশের রাজ্য থেকেও এসেছিলেন প্রবাসীরা। খোকার রাজনৈতিক সহকর্মী বিএনপি নেতা এম এ সালাম বলেন, খোকা ছিলেন সর্বস্তরের মানুষের প্রিয় একজন নেতা- এটা তারই প্রমাণ। জানাজার আগে মুক্তিযোদ্ধা খোকার কফিনে স্যালুট জানান সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের যুক্তরাষ্ট্র শাখার নেতারা। এ সময় জাতীয় পতাকা দিয়ে তার কফিন ঢেকে দেওয়া হয়। স্যালুটে অংশহণকারীদের দলে ছিলেন সংগঠনের শাখার সভাপতি রাশেদ আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল বারী বকুল, সহ-সভাপতি আবুল বাশার চুনড়বু ও কার্যকরি সদস্য লাবলু আনসার। খোকার প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানাতে জানাজায় এসেছিলেন মুক্তিযোদ্ধা বাবরউদ্দিন, সুরুজ্জামান ও আবদুল মুকিত চৌধুরী। এর আগে নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশ কনস্যুলেটের ফার্স্ট সেμেটারি শামীম হোসেন বক্তব্য দিতে গেলে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির কর্মীরা খোকার পাসপোর্ট নবায়ন না করার প্রতিবাদ জানান। পরিস্থিতি হট্টগোলে রূপ নিলে বিএনপি আবদুস সালাম, জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারের সাধারণ সম্পাদক মনজুর আহমদ চৌধুরী এবং সাদেক হোসেন খোকার ছেলে ইশরাক হোসেন সবাইকে শান্ত থাকার অনুরোধ জানান। খোকার ছোট ছেলে ইশফাক হোসেনও এ সময় উপস্থিত ছিলেন। নেতাকর্মীদের শান্ত থাকার অনুরোধ জানিয়ে ইশফাক বলেন, আপনারা আমার বাবার জন্য যা করেছেন আমার পরিবার তা মনে রাখবে। পাসপোর্ট নবায়ন না করলেও বাবার লাশ দ্রুত দেশে নেওয়ার ব্যবস্থা করতে প্রয়োজনীয় সহায়তা দেওয়ায় নিউ ইয়র্ক কনস্যুলেটের কর্মকর্তাদেরকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। অন্যদের মধ্যে অ্যাটর্নি মঈন চৌধুরী, কাজী নয়ন, ডা. ওয়াদুদ ভুইয়া, ডা. ওয়াজেদ এ খান, বেদারুল ইসলাম বাবলা, এমাদ চৌধুরী, আবদুল লতিফ স¤্রাট, গিয়াস আহমেদ, জিল্লুর রহমান, মিল্টন ভুইয়া, গিয়াসউদ্দিন, আজহারুল হক মিলন, পারভেজ সাজ্জাদ, এম এ বাতিন, আবু তাহের, হাবিবুর রহমান সেলিম রেজা, জাকির এইচ চৌধুরী, আবু সাঈদ আহমেদ, মোহাম্মদ আলী, সিদ্দিকুর রহমান, হাজী এনাম, সামাদ আজাদ, দরুদ রনেল, মহিউদ্দিন দেওয়ান ও জসীম ভুইয়া উপস্থিত ছিলেন জানাজায়। রোববার রাত ২টা ৫০ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় গত সোমবার দুপুর ১টা ৫০ মিনিট) নিউ ইয়র্কের ম্যানহাটনের বিশেষায়িত হাসপাতাল মেমোরিয়াল স্লোয়ান ক্যাটারিং ক্যান্সার সেন্টারে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকা। তার বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর।

রাজধানীতে নব্য জেএমবি’র ৪

মো. ফরহাদ আলী ওরফে ফুয়াদ (৩১) ও মুনতাসিম বিল্লাহ ওরফে সাব্বির (২১)। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গ্রেফতার চারজনই নব্য জেএমবি’র সμিয় সদস্য। তারা ২০১৮ সালের মাঝামাঝি সময়ে বগুড়ার দুপচাঁচিয়া থানার সঞ্জয়পুর গ্রামের নাগর নদীর তীরে রাকিবুল হাসান ওরফে আরতুগুলের নেতৃত্বে কথিত আইএসস’র মিডিয়ায় প্রচারের জন্য একটি ভিডিও ধারণ করেছিল। পরবর্তী সময়ে নরসিংদী জেলার ‘অপারেশন গর্ডিয়ান নট’ পরিচালনার পর আরতুগুল গ্রেফতার হলে অন্যরা আত্মগোপনে চলে যায়। সম্প্রতি অনুরূপ একটি ভিডিও তৈরির জন্য তাদের কথিত আমির নির্দেশনা দিলে, কীভাবে ভিডিওটি তৈরি করা যায় সে বিষয়ে শলাপরামর্শ করতে ঢাকায় আসে। এছাড়া গ্রেফতার জেএমবি সদস্যারা অনলাইনে বিভিনড়ব আইডি ব্যবহার করে উগ্রবাদী মতাদর্শ প্রচার এবং তাদের সংগঠনের জন্য সদস্য সংগ্রহে তৎপর ছিল বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তথ্য দিয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, তাদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস দমন আইনে রমনা থানায় মামলা করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার তাদের ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

ঢাকা লিট ফেস্ট শুরু হচ্ছে কাল

রাসেল, ঢাকা ট্রিবিউনের সম্পাদক জাফর সোবহান, প্লাটিনাম স্পন্সর সিটি ব্যাংকের এমডি মাসরুর আরেফিন প্রমুখ। সংবাদ সম্মেলনের শেষ পর্যায়ে অংশ নেন ঢাকা লিট ফেস্টের পরিচালক কাজী আনিস আহমেদ এবং আহসান আকবর। সাদাফ বলেন, ৭-৯ নভেম্বর (বৃহস্পতিবার-শনিবার) অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এ সাহিত্য উৎসবে পাঁচটি মহাদেশের ১৮টি দেশ থেকে শতাধিক বিদেশি এবং দুই শতাধিক বাংলাদেশি সাহিত্যিক, লেখক, গবেষক, সাংবাদিক, রাজনীতিক অংশ নেবেন। দেশি-বিদেশি অতিথিদের সঙ্গে সরাসরি সাহিত্যসহ সমাজের বিভিনড়ব বিষয় নিয়ে আলোচনা-পর্যালোচনার সুযোগ পাবেন দর্শনার্থীরা। তিনদিনের এ আয়োজনে ভারতীয় রাজনীতিক শশী থারুর, কথা সাহিত্যিক উইলিয়াম ডালরিম্পল প্রমুখ। দুই বাংলার জনপ্রিয় লেখক শংকরও আসছেন এবারের উৎসবে। বৃহস্পতিবার সকালে উৎসবের উদ্বোধন করবেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এবং ম্যানবুকার পুরস্কারের মনোনয়নপ্রাপ্ত সাহিত্যিক মনিকা আলী। উৎসবে যোগ দেবেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় কথা সাহিত্যিক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, ইমদাদুল হক মিলন, শাহীন আখতার, আসাদ চৌধুরী, রুবী রহমান, সেলিনা হোসেন প্রমুখ। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এবার উৎসবে থাকছে বইয়ের সমারোহ ও দেশীয় ঐতিহ্যকে তুলে ধরার উন্মুক্ত মঞ্চ। পাশাপাশি বই প্রকাশ এবং বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হবে। থাকবে লোকশিল্পীদের উপস্থিতি। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য শিল্পী চন্দনা, মাইজভা-ারি শিল্পীগোষ্ঠী। অংশ নেবেন ভারতীয় সাংবাদিক প্রেয়াগ আকবর, প্রিয়াঙ্কা দুবে, ফিনিশ সাংবাদিক মিনড়বা লিন্ডগ্রেন, ডিএসসি পুরস্কারপ্রাপ্ত লেখক এইচএম নাকভি, ব্রাজিলের কথাসাহিত্যিক ইয়ারা রড্রিগেজসহ আরও অনেকে। সাংবাদিকদের এক প্রশেড়বর জবাবে সাদাফ বলেন, উৎসবের উদ্দেশ্য বাংলাদেশের অসাম্প্রদায়িকতা, গণতন্ত্র ও সাহিত্য বিশ্বের কাছে তুলে ধরা। ঢাকা লিট ফেস্ট ২০২০ আমাদের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে উৎসর্গ করা হবে। এবছরও বঙ্গবন্ধুর ওপরে থাকছে বেশ কয়েকটি সেশন। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, উৎসবের প্রমদিন জেমকন সাহিত্য পুরস্কার দেওয়া হবে। দ্বিতীয় দিনে প্রদর্শিত হবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওপর নির্মিত ডকুফিল্ম ‘হাসিনা: অ্যা ডটার্স টেল’। প্রদর্শন শেষে চলচ্চিত্র নির্মাতা পিপলু খান বলবেন, তার নির্মাণ অভিজ্ঞতা। এ ছাড়া ভারতীয় চলচ্চিত্র নির্মাতা কৌশিক মুখার্জির আসছেন তার চলচ্চিত্র নিয়ে আলাপ করতে। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ৭টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে উৎসব। তবে এর জন্য আগে থেকেই নিবন্ধন করতে হবে। আয়োজকেরা বলছেন, অংশগ্রহণকারীর পরিচয় নিশ্চিত করতেই এই নিবন্ধন। ওয়েবসাইটে নিবন্ধন করার পর একটি ই-টিকিট পাওয়া যাবে; যা অংশগ্রহণকারীর প্রবেশপত্র হিসেবে ব্যবহৃত হবে। তবে সবার সুবিধার্থে ই-টিকিটটি প্রিন্ট বা ইলেক্ট্রনিক ডিভাইসে বহন গ্রহণযোগ্য হবে। তবে বিশেষ এ আয়োজনে অংশ নিতে যাওয়া বিশেষ বক্তাদের সর্ম্পকে ওয়েবসাইটে জানা যাবে। যেখানে তুলে ধরা হয়েছে আয়োজনে অংশগ্রহণকারীদের পরিচয় থেকে শুরু করে সংক্ষিপ্ত আদ্যোপান্ত। আয়োজকেরা জানান, ঢাকা লিট ফেস্ট আয়োজনে সহযোগিতা করছে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়। অনুষ্ঠানের সার্বিক আয়োজনে থাকছে যাত্রিক। আর সহ-আয়োজক হিসেবে রয়েছে বাংলা একাডেমি।


শুধু চুনোপুঁটি নয়, রাঘব

বর্তমানে দুদক তদন্ত এবং প্রসিকিউশন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের ব্যাপক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা নিয়েছে। দুদকের মামলায় সাজার হার একসময় মাত্র ২২ শতাংশে নেমে এসেছিল, যা বর্তমানে প্রায় ৭০ শতাংশে উনড়বীত হয়েছে। তিনি আরও বলেন, দুদকে ২ শতাধিক মানিলন্ডারিং মামলা দায়ের করা হয়েছে। এসব মামলার ১৬টির রায় হয়েছে বিচারিক আদালতে। প্রতিটি মামলায় আসামিদের সাজা হয়েছে।

কক্সবাজারে পুনরায় জন্ম নিবন্ধন
রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। কক্সবাজারের বাসিন্দা সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী নাসরিন সিদ্দিকা লিনা এ রিট দায়ের করেন। তিনি নিজেই শুনানি করেন। স্থানীয় একটি দৈনিকের ‘২০ মাস ধরে বন্ধ জন্ম নিবন্ধন’ শীর্ষক প্রতিবেদন ?যুক্ত করে এ রিট দায়ের করেন তিনি। নাসরিন সিদ্দিকা লিনার মতে, অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গারা যাতে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব লাভসহ পরিচয়পত্র গ্রহণ করতে না পারে সেজন্য কক্সবাজারের চারটি পৌরসভা এবং ৭১টি ইউনিয়নের জন্ম নিবন্ধন কার্যμম বন্ধ রয়েছে। ফলে কক্সবাজারের স্থানীয় জনসাধারণ অনলাইনে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন, বিদ্যালয়ে ভর্তি, পাসপোর্ট গ্রহণ, ভোটার তালিকায় নিজ নাম অন্তর্ভূক্তি ইত্যাদি ক্ষেত্রে বঞ্চনার শিকার হচ্ছেন। গত মে মাসে গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, ‘কক্সবাজার জেলার চারটি পৌরসভাসহ আট উপজেলায় দীর্ঘ ২০ মাসের বেশি সময় ধরে বন্ধ রয়েছে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন কার্যμম। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন স্থানীয় লোকজন। দীর্ঘ সময় ধরে স্থানীয়রা জন্ম নিবন্ধন ছাড়া গুরুত্বপূর্ণ সময় পার করলেও বর্তমানে ভোটার তালিকা হালনাগাদ করতে অনলাইনের বাধ্যতামূলক জন্ম নিবন্ধন কপি সংযোজন করতে হওয়ায় চরম বিপাকে পড়ছে নতুন ভোটার হতে

আগ্রহীরা। স্থানীয়দের অভিযোগ, রোহিঙ্গাদের কারণে কক্সবাজারের স্থানীয় মানুষের সমস্যার শেষ নেই। তার ওপর দীর্ঘ ২০ মাস ধরে জাতীয় সার্ভার বন্ধ করে রাখা খুবই দুঃখজনক। এর একটি বিহিত করা জরুরি।

হাজিদের সেবায় সর্বোচ্চ

পরিবর্তে ঢাকায় সম্পনড়ব করা এবং তাদের লাগেজ পরিবহন ব্যবস্থা উনড়বত করে বাংলাদেশের হজ ব্যবস্থাপনার প্রশংসা করেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত হাউজ অব লর্ডসের সদস্য মঞ্জিলা ব্যারোনেস উদ্দিন। এর আগে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আব্দুল্লাহ বৃটিশ পার্লামেন্টে এসে পৌঁছলে তাকে স্বাগত জানান মঞ্জিলা। মতবিনিময় সভায় জেদ্দায় নিযুক্ত যুক্তরাজ্যের কনসাল জেনারেল, সৌদি আরব, সুদান, দক্ষিণ আফ্রিকা, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান ও নাইজেরিয়াসহ ২৫টি দেশের হেড অব ডেলিগেশন ও তাদের সফরসঙ্গী, হজ এজেন্সিজ, বিভিনড়ব মোবাইল কোম্পানির প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাঈদা মুনা তাসনিম, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এবিএম আমিন উল্লাহ নূরী ও যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত কাউন্সিলর (রাজনৈতিক) দেওয়ান মাহমুদুল হক এ আন্তর্জাতিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।


দেশের দীর্ঘতম সেতু নির্মাণেরচ

জবাবে কাদের বলেন, উনড়বয়ন অগ্রগতিতে সারা বিশ্বে বিস্ময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একটা দৃশ্যমান কাজ বিএনপি দেখাতে পারবে না। তাদের (বিএনপি) আছে কথামালার চাতুরি। তাদের সরকার এই দেশে দৃশ্যমান কোনো উনড়বয়ন করতে পারেনি। এখন শেখ হাসিনা সরকার করছে, এটা তাদের গায়ে জ¦ালা, অন্তজর্¦ালা তারা সইতে পারছে না। পদ্মাসেতু থেকে সরে যাওয়ার পর নতুন প্রকল্পে টাকা দেওয়ার জন্য বিশ্বব্যাংক অস্থির হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিশ্বব্যাংক ঢাকা শহরে নতুন বিআরটি (বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট) প্রকল্প করার জন্য প্রস্তাব দিয়েছে। কিন্তু এ মুহূর্তে যেহেতু মেট্রোরেল ও বিআরটি প্রকল্পের কাজ চলছে, তাই নতুন করে আরেকটি বিআরটি প্রকল্প নিয়ে ঢাকা শহরকে অচল করতে চাই না। ওবায়দুল কাদের বলেন, পদ্মাসেতুর সার্বিক অগ্রগতি ৭৫ ভাগ সম্পনড়ব হয়েছে। অনেক চ্যালেঞ্জ অতিμম করে পদ্মাসেতু আজ দৃশ্যমান। ২০২১ সালের জুনের মধ্যে পদ্মাসেতু খুলে দেওয়া হবে। এছাড়াও কর্ণফুলী টানেলের কাজ ৪৯ শতাংশ সম্পনড়ব হয়েছে। মন্ত্রী বলেন, সরকারের অগ্রাধিকার প্রকল্প পদ্মাসেতু। প্রধানমন্ত্রীর সাহসিকতার ফল আজকের পদ্মাসেতু। প্রধানমন্ত্রীর পরিবারকে অপবাদ দিয়ে বিশ্বব্যাংক যখন সরে যায়, তখন আকাশে ছিলো ঘনকুয়াশা ও মেঘ। তখন সবাই বললো, এ সেতু কী আর হবে? বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা তখন সাহসের সঙ্গে বললেন, বিশ্বব্যাংক সরে গেছে, তাতে কী হবে, আমরা নিজস্ব অর্থে এ সেতু নির্মাণ করবো। তখন অনেকে ব্যাঙ্গ করেছিলো। কিন্তু আজ বাস্তব স্বপড়ব পদ্মাসেতু। ওবায়দুল কাদের বলেন, বিশ্বব্যাংক সরে যাওয়ার পর দুনিয়ার নামিদামি বিশেষজ্ঞরা বললেন, পদ্মাসেতু নির্মাণ বাংলাদেশের পক্ষে কীভাবে সম্ভব। এখানের মাটি সরে যায়। পদ্মা নদীর যে মাটির অবস্থা, তীব্র স্রোত আবার বালু, কাদা। এখন পর্যন্ত ১৫টি পিলার বসেছে। আগামি ডিসেম্বর পর্যন্ত আরো ৬টি টার্গেট। আশা করি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সেতু নির্মাণ করা হবে। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিস্থিতি প্রধানমন্ত্রীর পর্যবেক্ষণে রয়েছে বলে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, এটা প্রধানমন্ত্রীর নজরে আছে, এর সর্বশেষ খবর প্রধানমন্ত্রী জানেন। কোনো ব্যবস্থা নিতে হলে তিনি খোঁজ-খবর নিয়ে নেবেন। সরকার প্রধান এ ব্যাপারে খুব সজাগ। তিনি বিষয়টা পর্যবেক্ষণ করছেন, অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা নেবেন। উপাচার্য ফারজানা ইসলামের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে তার পদত্যাগের দাবিতে একদল শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে এক সপ্তাহ ধরে অচল জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়। দুপুরে ওবায়দুল কাদের যখন কথা বলছিলেন, তখন সাভারে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের বাড়ি ঘেরাও করে রেখেছিল আন্দোলনকারীরা। পরে ছাত্রলীগ ও উপাচার্য সমর্থক শিক্ষকরা চড়াও হয় আন্দোলনকারীদের ওপর। ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা আন্দোলনকারীদের পিটিয়ে সরিয়ে দেয়। এ পরিস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে গতকাল মঙ্গলবার বিকালের মধ্যে শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় জাহাঙ্গীরনগরে অস্থিরতার শুরু গত আগস্টে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উনড়বয়নে প্রায় দেড় হাজার কোটি টাকার প্রকল্পে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা তখন আন্দোলন শুরু করেন। এর মধ্যেই ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে উপাচার্য ফারজানার কাছে চাঁদা চাওয়ার অভিযোগ ওঠে। এই ঘটনার পরে ছাত্রলীগের দুই শীর্ষনেতাকে পদ হারাতে হলেও তারা অভিযোগ অস্বীকার করে উল্টো অধ্যাপক ফারজানার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তোলেন। উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতাদের অর্থ দিয়েছেন বলে অভিযোগ ওঠে, যার অডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ে। প্রায় একই সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন ছাত্রলীগ নেতা ‘ঈদ সালামী’ হিসেবে ১ কোটি টাকা পাওয়ার কথা স্বীকারও করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে উপাচার্যের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে তার তদন্তের দাবিতে নতুন কর্মসূচিতে নামে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। চাপের মুখে উপাচার্য ফারজানা আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আলোচনায় বসলেও তা ফলপ্রসূ না হওয়ায় গত ১৯ সেপ্টেম্বর তার পদত্যাগের দাবিতে শুরু হয় আন্দোলন, গত সপ্তাহ থেকে আন্দোলনকারীরা শুরু করে ধর্মঘট। সেতু বিভাগের সচিব মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেনের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় সেতু বিভাগ ও বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


দুই মাসের ছুটিতে ডিপিডিসির

সরকার ৩০ অক্টোবর থেকে আগামি ৩১ ডিসেম্বর পযর্ন্ত চাকরীবিধি ৭.৬ অনুসারে বাধ্যতামূলক ছুটিতে প্রেরণ করা হয়েছে। এতে আরও বলা হয়, উল্লিখিত ছুটির সময়ে ৩৮দিন অর্জিত (সম্বনয়পূর্বক) এবং অবশিষ্ট ২৫ দিন অসাধারণ ছুটি (বিনা বেতনে) হিসেবে গণ্য হবে। অপর এক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ৩ নভেম্বর থেকে মো. রমিজউদ্দীন সরকারের প্রদত্ত ছুটি কালীন সময়ে ডিপিডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক, এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর (ইঞ্জিনিয়ার) বিকাশ দেওয়ান যাবতীয় দ্বায়িত্ব পালন করবেন। যার স্মারক নম্বর, ৮৭. ৪০৪. ৪২৭. ০২. ০৬৭. ২০১৪(৭).১৪১১। প্রঙ্গসত, তিন কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ ও সম্পদের তথ্য গোপন করার অভিযোগে এবং মানিলন্ডারিং আইনে ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি (ডিপিডিসি) লিমিটেডের নির্বাহী পরিচালক মো. রমিজউদ্দীনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন। এ ছাড়া গত ২৭ অক্টোর ২০১৯ রমিজউদ্দীনের সম্পত্তি জব্দ করেছে দুদক। গত দুই বছরে টেন্ডারের মাধ্যমে ঢাকানরায়ণগে ঞ্জ ৫ টি বিদ্যুতের উপ-কেন্দ্র (গ্রীড) নির্মাণ কাজ করা হয়েছে। বিদ্যুৎ কেন্দ্র গুলো হলো- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে,রাজারবাগ পুলিশ লাইনে, বনশ্রী, মুগদা এবং নারায়ণগঞ্জে। গত সোমবার থেকে ডিপিডিসির এমডি বিকাশ দেওয়ান ওই দপ্তরের সার্বিক দায়িত্ব পালন করবেন।উল্লেখ্য, গত ২৯ জানুয়ারী তিন বছর মেয়াদে ডিপিডিসির ৯ টি ডিভিশন ডিএসএস-এর কাজ ঠিকাদারি একটি প্রতিষ্ঠানকে দেওয়া হয়েছে। এই প্রকল্পের টেন্ডার হয় প্রায় ২৮ কোটি টাকা। রাজধানীর কাওরান বাজারে ভূগর্ভস্থ একটি সাব-স্টেশন স্থাপন করা হবে। এই মেগা প্রকল্পে জাইকা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ২ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে। ধানমন্ডি এলাকায় নতুন করে ভূগর্ভস্থ একটি সাব-স্টেশন স্থাপনে ২০ হাজার কোটি টাকা জি টু জি একটি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। রমিজ উদ্দিন সরকারের আওতায় এসব প্রকল্প।


ভাঙ্গায় বিশিষ্ট সমাজসেবক কাজী

পত্রিকার সম্পাদক এ কে এম মতিউর রহমান, ভাঙ্গা মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ এ এইচ এম রেজাউল করিম, বিভিনড়ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ, প্রসাশনিক কর্মকর্তা, ভাঙ্গা, সদরপুর ও চরভদ্রাসন উপজেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, মরহুমের শুভাকাঙ্খী, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও এলাকার জনগণ। উল্লেখ্য, ২০০৯ সালের ৫ নভেম্বর বার্ধক্যজনিত কারনে ঢাকার সমরিতা হাসপাতালে ৯৭ বছর বয়সে তিনি ইন্তেকাল করেন। মরহুমের প্রতিষ্ঠিত কলেজ ও স্কুলগুলো হল ভাঙ্গার সরকারী কাজী মাহবুবউল্লাহ কলেজ, কাজী শামসুনেড়বছা বালিকা বিদ্যালয়, কাজী ওয়ালিউল্লাহ উচ্চ বিদ্যালয় কাউলিবেড়া, সদরপুরে সরকারী বেগম কাজী জেবুনেড়বছা বালিকা বিদ্যালয়, তার শশুর বাড়ি পটুয়াখালির দশমিনায় ১টি কলেজ ও ১টি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। তিনি কাজী মাহবুবউল্লাহ ও বেগম জেবুনেড়বছা জনকল্যাণ ট্রাস্ট এর প্রতিষ্ঠাতা। এছাড়া জীবদ্দসায় তিনি বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য এবং ঢাকা লায়ন্স সেন্ট্রালের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন।